crimepatrol24
২রা এপ্রিল, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, এখন সময় রাত ২:২৮ মিনিট
  1. অনুসন্ধানী
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন-আদালত
  6. আঞ্চলিক সংবাদ
  7. আন্তর্জাতিক
  8. আফ্রিকা
  9. আবহাওয়া বার্তা
  10. আর্কাইভ
  11. ইউরোপ
  12. ইংরেজি ভাষা শিক্ষা
  13. উত্তর আমেরিকা
  14. উদ্যোক্তা
  15. এশিয়া

গ্রামগুলোতে শহরের সুযোগ- সুবিধা প্রদানের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সরকার : এলজিআরডি মন্ত্রী

প্রতিবেদক
মো: ইব্রাহিম খলিল
ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৯ ৩:২৪ অপরাহ্ণ

ক্রাইম পেট্রোল ডেস্ক : স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেছেন, দেশের গ্রামগুলোতে শহরের সকল প্রকার সুযোগ সুবিধা প্রদানের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সরকার। এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)’র সংশ্লিষ্ট অঙ্গসমূহ নিয়ে কাজ করছে, যার কর্মপরিকল্পনা শিগগিরই চূড়ান্ত করা হবে। 

আজ মঙ্গলবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি একথা বলেন। সরকারি দলের সদস্য এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো জানান, গ্রামে শহরের সুবিধা নিশ্চিত করতে ইতোমধ্যে দেশব্যাপী প্রতিটি গ্রামে উন্নত রাস্তাঘাট, যোগাযোগ স্থাপন সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ ও কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন, পল্লী উন্নয়ন, এলাকায় গ্রামীণ হাটবাজার সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ, গ্রাম পর্যায়ে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং সমন্বিত ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন বিষয়ক পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে। 

সরকারি দলের নুরুন্নবী চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে তাজুল ইসলাম বলেন, ঢাকা মহানগরীতে পানি সরবরাহের পাইপ লাইন এবং ওয়াসা নির্মিত বড় আকারের স্টর্ম স্যুয়ারেজ ও সংশ্লিষ্ট ম্যানহোলের ঢাকনা ঢাকা ওয়াসা নিয়ন্ত্রণ ও রক্ষণাবেরক্ষণ করে থাকে। ঢাকা শহরে ৯৩০ কিলোমিটার স্যুয়ারেজ লাইন আছে যার মধ্যে প্রায় ৩০ হাজার ঢাকনা আছে। ৩৫০ কিলোমিটার ড্রেনেজ লাইনে প্রায় ৭ হাজার ঢাকনা আছে। সবগুলো ম্যানহোলের ঢাকনা বিপদমুক্তভাবে লাগানো। কোনটি নষ্ট হলে তা তাৎক্ষণিকভাবে প্রতিস্থাপন করা হয়। এ জন্য ঢাকা ওয়াসার ১০টি মডস্ জোন পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণে নিয়োজিত আছে এবং সার্বিক তদারকির বিষয়ও তাদের উপরে ন্যস্ত।

সরকারী দলের মো. আনোয়ারুল আজীমের লিখিত প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, বর্তমানে বাংলাদেশে ৮৭ শতাংশ জনগন নিরাপদ পানি সুবিধার আওতার্ভুক্ত। এ হিসাবে দেশের মোট জনসংখ্যার ১৩ কোটি ৯২ লাখ মানুষ এ সুবিধা ভোগ করছে। নিরাপদ পানির সুবিধাভোগী মানুষের সংখ্যা ৮৭ শতাংশ হলেও ৯৯ শতাংশ মানুষ মৌলিক স্যানিটেশনের অন্তর্ভুক্ত। এর মধ্যে ৬১ শতাংশ জনগন উন্নত ল্যাট্টিনের আওতার্ভুক্ত রয়েছে। অবশিষ্ট ২৮ শতাংশ যৌথ ল্যাট্রিন এবং ১০ শতাংশ অনুন্নত ল্যাট্রিন ব্যবহার করেন।

জাতীয় পার্টির মশিউর রহমান রাঙ্গাঁর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, পল্লী দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশন (পিডিবিএফ) এর অন্যতম প্রধান লক্ষ্য হলো, পল্লীর দরিদ্র ও অসুবিধাগ্রস্ত জনগোষ্ঠীর আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন, নারীর ক্ষমতায়ন ও নারী-পুরুষের বৈষম্য দূরীকরণ। পিডিবিএফ বর্তমান সরকোরের রুপকল্প-২০২১ ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত মধ্যম আয়ের দেশ, ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। পিডিবিএফ টেইসই দারিদ্র বিমোচনে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

আওয়ামী লীগের সদস্য হাজী সেলিমের আরেক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ঢাকা উত্তর সিটির নিয়ন্ত্রনাধীন ২৩টি পার্ক ও ৪টি শিশুপার্ক রয়েছে। একই ভাবে দক্ষিণ সিটিতে ২০টি পার্ক রয়েছে।

Share This News:

সর্বশেষ - জাতীয়

আপনার জন্য নির্বাচিত