crimepatrol24
২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, এখন সময় রাত ৩:২৬ মিনিট
  1. অনুসন্ধানী
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন-আদালত
  6. আঞ্চলিক সংবাদ
  7. আন্তর্জাতিক
  8. আফ্রিকা
  9. আবহাওয়া বার্তা
  10. আর্কাইভ
  11. ইউরোপ
  12. ইংরেজি ভাষা শিক্ষা
  13. উত্তর আমেরিকা
  14. উদ্যোক্তা
  15. এশিয়া

ঝিনাইদহে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদের সব গুলোতেই আ’ লীগের প্রতিদ্বন্দ্বী আ’লীগ

প্রতিবেদক
মো: ইব্রাহিম খলিল
মার্চ ১৯, ২০১৯ ৪:৪৭ অপরাহ্ণ


জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের চার উপজেলা পরিষদের নির্বাচন আগামী ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে এসব উপজেলায় চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদের সব গুলোতেই আওয়ামী লীগের প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামীলীগ। নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর প্রতিপক্ষ হিসেবে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা সবাই আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী। এ নিয়ে জেলার নেতাকর্মীদের মধ্যে বিভেদ প্রকাশ্যে এসেছে। এনিয়ে বিব্রত জেলা উপজেলার নেতারাও। যদিও দলটির জেলার র্শীষ নেতারা বলছেন, বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নেওয়ায় কৌশল হিসেবে তারা দল মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে নিজ দলের একজনকে প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে ভোটের মাঠে নামিয়েছেন।

নির্বাচন অফিস ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, জেলার ৬ উপজেলার মধ্যে তৃতীয় ধাপে ভোট অনুষ্ঠিত হবে ঝিনাইদহ সদর, শৈলকুপা, হরিনাকুন্ডু ও কালীগঞ্জ উপজেলায়। এতে চেয়ারম্যান পদে ৭ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৪ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ইতোমধ্যেই নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহাঙ্গীর সিদ্দিক ঠান্ডু বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুইজনের মধ্যে সিমা খাতুন তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিয়েছে। যদিও ব্যালট পেপারে তার প্রতীক থাকবে। ফলে এ উপজেলায় শুধু ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এখানে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছে উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি শিবলী নোমানি। তার প্রতিদ্বন্দ্বী বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান মতি। বাকি তিন উপজেলা পরিষদের মধ্যে ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামলীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. অব্দুর রশীদ। তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে মাঠে রয়েছে সদর উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান জেএম রশিদুল আলম। দলীয়ভাবে বিদ্রোহী তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটের মাঠে রয়েছেন। হরিণাকুন্ডু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রাথী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মশিউর রহমান জোয়ার্দার। তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে মাঠে রয়েছে দলের বিদ্রোহী প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসাইন। মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ায় তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটের মাঠে রয়েছেন। এ ছাড়া ভোটের মাঠে রয়েছে স্থানীয় আওয়ামী লীগের সদস্য নাসিমা আক্তার মায়া। এছাড়া শৈলকুপা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়্যারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নায়েব আলী জোয়ার্দার। তাকে চ্যালেঞ্জ করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান শিকদার মোশারফ হোসেন সোনা। বিদ্রোহী প্রাথী মাঠে থাকায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে কোন্দল প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে। বর্তমান এই চেয়ারম্যান ভোটের মাঠে থাকায় নৌকার প্রার্থী চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছেন বলে সাধারণ ভোটাররা জানিয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এম আবদুল হাকিম আহমেদ জানান, কিছুটা কোন্দলের কারণে দলীয় প্রার্থীর বিপরীতে একজন বা একাধিক প্রার্থী ভোটের মাঠে থাকলেও হাইকমাণ্ডের কোনো বিধি-নিষেধ না থাকায় তাদের বিরুদ্ধে কোন শস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। বরং নির্বাচনকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ করার জন্যই তাদেরকে ভোটের মাঠে নামানো হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। তবে এসব বিদ্রোহী প্রার্থীরা মাঠে থাকায় নির্বাচন উৎসবমুখর হবে বলেও দাবি করেন এই জেলা আওয়ামী লীগ নেতা।

Share This News:

সর্বশেষ - লাইফ স্টাইল