সরিষাবাড়ীতে সাবেক এম.পি আব্দুল মালেকের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

সরিষাবাড়ী (জামালপুর)প্রতিনিধি :
জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর,বঙ্গবন্ধুর পার্লামেন্টের দু-বারের সংসদ সদস্য,উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্ধ শতাব্দীর সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মালেকের ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। রোববার (১৯ জানুয়ারি) সকালে কামরাবাদ মরহুমের কবরে পুস্পস্তবক অর্পণ,পৌরসভার শিমলা বাজার বাস ভবনে কোরআন খানি,সরিষাবাড়ী হাফিজিয়া মাদ্রাসায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।মরহুমের কবরে উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ সংগঠন,এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের মোনাজাতে অংশগ্রহণ করেন।
সরিষাবাড়ী আওয়ামী রাজনীতির বটবৃক্ষ মরহুম আব্দুল মালেকের কবরে পুস্পস্তবক অর্পন শেষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছানোয়ার হোসেন বাদশা,মরহুমের ছেলে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক পানি বিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান হেলাল,বড় মেয়ে ডা. রোকসানা ফেরদৌস,মেঝ কন্যা ডা. মাহমুদা নাসরিন, ছোট কন্যা ডা. মমতাজ পারভীন,জেলা আওয়ামী লীগের উপদপ্তর সম্পাদক অ্যাড. জহুরুল ইসলাম মানিক,উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এম এ লতিফ,মনির উদ্দিন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সৈয়দ তানভীর আহমেদ,উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি ফরিদুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম বিদ্যু,উপজেলা স্বেচ্ছা সেবক লীগের সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক মামুন অর রশীদ,জেলা ছাএলীগের সাধারণ সম্পাদক মাকসুদ বিন জালাল প্লাবন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
মরহুম আব্দুল মালেক ১৯৬৮ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭০ সালে বঙ্গবন্ধুর পার্লামেন্টে দুই দুই বার সংসদ সদস্য ও মুক্তিযুদ্ধকালীন ভারত-বাংলাদেশ যৌথ ক্যাম্পের মহেন্দ্রগঞ্জ ক্যাম্পের নির্বাচিত সভাপতি ছিলেন।২০০৯ সালে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।তিনি মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ছিলেন।২০১৬ সালের ১৯ জানুয়ারি বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৬ ছেলে, ৩ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
এ ব্যাপরে পৌর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম বিদ্যুৎ তার পিতার ৪র্থ মুত্যু বার্ষিকীকে উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ সংগঠন,এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান,বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মী অংশগ্রহণকারীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: