রংপুর মেডিক্যালে ভর্তি হওয়া চীনফেরত শিক্ষার্থীর শরীরে করোনাভাইরাসের লক্ষণ নেই

মো. সাইফুল্লাহ খাঁন, জেলাপ্রতিনিধি, রংপুর:
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি সদ্য চীনফেরত বাংলাদেশি যুবকের শরীরে করোনা ভাইরাসের কোনো লক্ষণ নেই বলে জানিয়েছে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) এর পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।  তিনি বলেন, হাসপাতালে ভর্তির সময় ওই লোকের মধ্যে করোনা ভাইরাসের কোনো লক্ষণ ছিল না। তার জ্বর- কাশি কিছুই ছিল না। এক ধরনের শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। সে কারণে তাকে পর্যবেক্ষণে নিয়ে এবং তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হচ্ছে,  ফলাফল এখনও পাওয়া যায়নি। তবে তার অবস্থা এখন ভালো।

গত ২৯শে জানুয়ারি রাতে তিনি চীন থেকে ফেরা নীলফামারীর ডোমারের ওই বাসিন্দা গত শুক্রবার রাতে অসুস্থ বোধ করলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে তাকে নীলফামারীর ডোমার উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পাঠিয়ে দেন।

রংপুর মেডিকেলের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) আব্দুল মোকাদ্দেম জানান, শনিবার বেলা ১১টার দিকে ২৫ বছর বয়সী ওই ব্যক্তিকে ‘আইসোলেশনে’ রাখা হয়েছে। তার গায়ে জ্বর নেই। তবে গলা ও বুকে ব্যথা রয়েছে।

এর আগে আজ তাকে নিয়ে ১২ সদস্য বিশিষ্ট গঠিত মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান ডা. দেবেন্দ্র নাথ সরকার  গণমাধ্যমকে বলেন,  রংপুর মেডিক্যাল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন চীন ফেরত শিক্ষার্থীর শরীরে প্রাথমিকভাবে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের আলামত মেলেনি।

চীনফেরত ওই রোগীকে নিয়ে খবর প্রচারে গণমাধ্যমকর্মীদের সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে আইইডিসিআরের পরিচালক বলেন, সন্দেহজনক কেউ পরীক্ষাধীন আছেন এমন ব্যক্তির গোপনীয়তা বজায় রাখা আমাদের সবার দায়িত্ব। এটা করতে না পারলে এ ধরনের ব্যক্তি সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন হতে পারেন।
আজ সকাল পর্যন্ত বাংলাদেশে ২৪ হাজার ৩৮৯ জনকে স্ক্রিনিং করে তাদের মধ্যে ৫৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে এখনও করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে আইইডিসিআর।

কারও শরীরে এ ভাইরাস পাওয়া গেলে সেটা গণমাধ্যমকে জানানো হবে কি না- জানতে চাইলে মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, তারা বিষয়টি আগে নিশ্চিত হবেন পাশাপাশি এটা জানানোর একটা প্রক্রিয়াও আছে। এটা হলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কাছে জানাতে হবে। এটা যেহেতু একটা পাবলিক হেলথ ইমার্জেন্সি। এ কারণে কিছু পদ্ধতি মেনে আমাদের সেটা জানাতে হবে। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে কথা বলেই আমরা নির্ধারণ করব এটা কখন কীভাবে জানাতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: