রংপুরে রমেশের খু-নি-রা প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা করলেও গ্রেফতার করছে না পুলিশ

 
মো. সাইফুল্লাহ খাঁন, জেলাপ্রতিনিধি, রংপুর>>
আজ ১২ অক্টোবর বিকাল ৪টায় রংপুর টাউন হল চত্বরস্থ সাহিত্য মঞ্চ প্রাঙ্গণে মৃত রমেশ চন্দ্র দেবনাথ এর পরিবারকে মানবিক সহায়তা প্রদান করেন ‘মানবতার মানুষ রংপুর’ সংগঠন। উক্ত অনুষ্ঠানে রংপুর পদাতিক,পদাতিক নাট্য সংসদ,আসক ফাউন্ডেশনের নেতৃবৃন্দসহ স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এসময় রমেশের খু-নি-দে-র গ্রেফতারের দাবিতে রংপুর পদাতিক এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বিজয় প্রসাদ তপু বলেন, অত্যন্ত দুঃখের বিষয় যে, মৃত রমেশের পরিবারের পাশে আজ সনাতন নেতারা কেউ নেই। রমেশের হ-ত্যা-কা-রী-রা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে, খু-নি-দে-র অবিলম্বে গ্রেফতার ও সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানান তিনি।
‘মানবতার মানুষ’ সংগঠনের সহ-সভাপতি ইরা হক বলেন, আসামিদের গ্রেফতার ও সুষ্ঠু বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমরা ‘মানবতার মানুষ’ সংগঠন রমেশের পরিবারের পাশে আছি এবং থাকব।
সংগঠনের মহিলা সম্পাদিকা জলি কিবরিয়া বলেন, কোনো অ-প-রা-ধী-র ছাড় নেই। সমাজের মানুষের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে এবং মানবিক কারণে রমেশের পরিবারকে সর্বাত্মক সহযোগিতার জন্য আমরা এর শেষ দেখতে চাই।
সংগঠনের সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন লাভলু বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশে খু-নি-দে-র কোন ঠাঁই নেই, রমেশের খু-নি-দে-র গ্রেফতার করতে প্রশাসনের সমস্যা কোথায়? পরে উক্ত অনুষ্ঠানে রমেশের পরিবারের হ-ত্যা-র করুণ চিত্র তুলে ধরেন।
রংপুর সদর উপজেলার উত্তর মমিনপুর যুগীপাড়া এলাকার বাসিন্দা রমেশ চন্দ্র দেবনাথ (৭২ ), পেশায় যুগীর চুন বিক্রেতা। জমিসংক্রান্ত বিরোধে গত ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, বিকাল সাড়ে ৪টায় প্রতিপক্ষ ওই এলাকার সুবল চন্দ্র দেবনাথ গং রমেশের বাড়ীসংলগ্ন ফাঁকা জমিতে এসে রমেশকে হ-ত্যা-র উদ্দেশে হামলা চালায়। এসময় তারা রমেশের পরিবারের সদস্যদের গু-রু-ত-র আ-হ-ত করে এবং শ্যামল চন্দ্র দেবনাথ (৩৮) তাকে হ-ত্যা-র উদ্দেশে ধাঁ-রা-লো ‘দা’ দিয়ে কু-পি-য়ে মারাত্মকভাবে জ-খ-ম করলে রমেশ র-ক্তা-ক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে ছ-ট-ফ-ট করে ঘটনাস্থলেই মারা যান। এর আগে রমেশের পরিরবারের ওপর একাধিকবার হা-ম-লা ও ঘরবাড়িতে অ-গ্নি-সং-যো-গ করা হয়। এ ব্যাপারে একাধিক মামলা চলমান থাকলেও নি-র্যা-ত-ন ও হু-ম-কি বন্ধ হয়নি।
ভূক্তভোগী পরিবারটি বিভিন্ন দায়িত্বশীলদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ন্যায় বিচার না পেয়ে রংপুর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ কাছে বিচার দেয়। এক্ষেত্রে পুজা উদযাপন পরিষদ কোনো প্রকার ব্যবস্থা গ্রহণ না করে উল্টো রমেশের পরিবারকে জমি ছেড়ে দেয়ার নির্দেশ দেয়। জমি না ছাড়লে বিপদ হবে বলে ভ-য়-ভী-তি দেখাতে থাকে। এছাড়াও পূজা উদযাপন পরিষদ রংপুর জেলার সাধারণ সম্পাদক ধীমান ভট্টাচার্য্যের হুকুমেই ওই হা-ম-লা চালানো হয়েছে- এমনটি বলেন ভুক্তভোগীরা।
তারা আরও বলেন, আসামীরা বুকফুলিয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে, বারবার পুলিশ প্রশাসনকে অবগত করা সত্ত্বেও অদৃশ্য কারণে আসামীদের গ্রেফতার না করে উল্টো বলছে, তদন্ত চলমান রয়েছে।
উল্লেখ্য, অসহায় পরিবারটি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।হ-ত্যা-কা-ণ্ডে জড়িত আসামীদের গ্রেফতারসহ সুষ্ঠু তদন্ত, ন্যায় বিচার ও নিরাপত্তা পেতে প্রশাসনের সুদৃষ্টির জন্য ‘মানবতার মানুষ’ রংপুর সংগঠনের দ্বারস্থ হয়েছেন অসহায় পরিবারটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: