মিরপুরের সুবিধাবঞ্চিত বীর মুক্তিযোদ্ধার চিকিৎসার জন্য সাহায্যের আবেদন !

বীর মুক্তিযোদ্ধা মুরাদ আলী। ছবি সংগৃহীত।

ক্রাইম পেট্রোল ডেস্ক: কুষ্টিয়ার মিরপুরের সুবিধাবঞ্চিত বীর মুক্তিযোদ্ধা মুরাদ আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। মূত্রনালী এবং মূত্রথলির সমস্যা নিয়ে তিনি কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

তার মেয়ে মরিয়ম জানান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মুরাদ আলীর মূত্রথলিতে সমস্যা। মূত্রনালী দিয়ে ক্যাথেটার ব্যবহার করে আপাতত মূত্র নির্গমন করানো হয়েছে। কিন্তু মূত্রথলি কাজ করছে না ঠিকমতো। যে কারণে তার অপারেশন প্রয়োজন।

মরিয়ম জানান, যেহেতু আমার বাবা সনদপ্রাপ্ত নন সেহেতু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে কোনো বিশেষ সুবিধা দিচ্ছে না। এরমধ্যে আমাদের প্রায় ১৫-১৬ হাজার টাকা খরচ হয়ে গেছে। অপারেশনের জন্য এখন প্রয়োজন কমপক্ষে ২৫ হাজার টাকার প্রয়োজন ।কিন্তু এই টাকা জোগাড় করে তার অপারেশন করানো আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়।

উল্লেখ্য, কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর উপজেলার অঞ্জনগাছি গ্রামের বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা মুরাদ আলী ৭০-এর বেশি বয়স নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন ভিক্ষা করে। ১৯৭১ সালে নিজ গ্রাম অঞ্জনগাছীর আজগর, পিয়ার, নূর হোসেন, ইনতাজ, ইয়াকুব, সাদেক, আবুল, আইনাল, মনছুর, শের আলীসহ আরো কয়েকজন টগবগে যুবক মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশ নেন। মুক্তিযুদ্ধকালীন তারা কুষ্টিয়া সদর উপজেলার আনছার ক্যাম্পের ক্যাম্প কমান্ডার তাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে যুদ্ধ করেন। দেশ স্বাধীন হলে সহযোদ্ধাদের অনেকেই মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় স্থান পেলেও বাদ পড়েন মুরাদ আলী। নাম তালিকাভুক্ত করতে তিনি যথাযথ কর্তৃপক্ষের দপ্তরে অসংখ্যবার আবেদন করেও আশানুরুপ ফল লাভে ব্যার্থ হয়েছেন।

মিরপুর উপজেলার সদ্য বিদায়ী মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নজরুল করিম বলেন, ‘আমি জানি মুরাদ আলী মুক্তিযুদ্ধের সময় সক্রীয়ভাবে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় নাম তোলার জন্য যে যথাযথ প্রক্রিয়া ছিলো তাতে অংশগ্রহণ করতে পারেননি। ফলে তিনি তালিকাভুক্ত হতে পারেননি। তবে তাকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে বিবেচনায় রেখে আমরা সবসময় তার পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। এখনও চাই তার জন্য যেন স্বচ্ছ্বল, হৃদয়বান ব্যক্তিরা এগিয়ে আসেন।’

এ প্রসঙ্গে মিরপুর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রশাসক এবং মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এম এম জামাল আহম্মেদ বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমার কাছে তেমন কোনো তথ্য নেই। তবে তার ব্যাপারে আমি খোঁজ নিচ্ছি। আর আগামীকাল তার পরিবারের কেউ আমার সঙ্গে যোগাযোগ করলে আমি যথাসম্ভব সহায়তার চেষ্টা করবো।

মুক্তিযোদ্ধা মুরাদ আলীর পরিবারের পক্ষ থেকে সহৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছে আর্থিক সহায়তা চাওয়া হয়েছে। তার জন্য সরাসরি সহায়তা পাঠানো যাবে তার মেয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে। তার মেয়ের মোবাইল নম্বর: ০১৭৪২৭৫৯৯৪৯।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: