বিএসএফ’র তাড়ায় মা ভারতে, পিতাসহ শিশু রাবেয়া আটক বিজিবির হাতে

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি :
রাবেয়ার বয়স মাত্র এক বছর দশ মাস। জন্মের পরপরই বাবা শরিফুল মোল্লার সঙ্গে মায়ের কোলে চড়ে চলে যান ভারতে। সেই থেকেই বাবা-মায়ের সঙ্গে ভারতের মুম্বাইয়ে থাকতো সে। শনিবার (২৩ নভেম্বর) কাঁটাতারবিহীন মাটিলা সীমান্ত পার হয়ে বাবা শরিফুল মোল্লার সঙ্গে রাবেয়া বাংলাদেশে ঢুকতে পারলেও বিএসএফ’র তাড়া খেয়ে মা ভারতে থেকে গেছে। এরপর বাবার কোলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ ৫৮ বিজিবি’র হাতে আটক হয়। বিকেলে ঝিনাইদহের মহেশপুর থানা পুলিশের মাধ্যমে আদালতে পাঠানো হয় তাদের। বিজিবির গাড়িতে চড়ে অন্যদের সঙ্গে মহেশপুর থানায় আসার পর বেশ প্রাণবন্ত ও হাসিখুশি দেখা যায় শিশু রাবেয়াকে। বিপদে থেকেও থানা চত্ত্বর মাতিয়ে রাখে রাবেয়ার হাসিমাখা মুখ। তবে এখনও শিশুটি জানে না তার মা এদেশে নেই। আদৌ তার মা ফিরতে পারবে কি না সেটাও জানে না অবুঝ রাবেয়া। এদিন তাদের সঙ্গে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে আটক হয় আরও ছয় শিশুসহ ৩০ নারী-পরুষ। শিশু রাবেয়াদের বাড়ি নড়াইলের কালিয়া উপজেলার সাতরাখালি গ্রামে। প্রায় ১৮ মাস আগে তারা পাসপোর্টবিহীন অবস্থায় ভারতে গিয়েছিল কাজের জন্য। এমনটাই জানালেন রাবেয়ার বাবা।

রাবেয়ার বাবা শরিফুল মোল্লা বিজিবিকে জানায়, ভারতে গিয়েছিলাম কাজের জন্য। সেখানে বোম্বে হোটেলে কাজ করতাম আমি ও স্ত্রী। বেশ কিছুদিন হলো আমাদের কাজের টাকা দেয় না মালিক। নানাভাবে মালিক নির্যাতন করতো। পাশাপাশি বিজেপি’র রাজনৈতিক লোকজন এসে ভয় দেখাতো। মালিকরাও বলতো এদেশের নাগরিক না, তোমরা বাংলাদেশে চলে যাও। এজন্য ভয়ে, টাকা পয়সা না পেয়ে আমরা বিনা পাসপোর্টে চলে এসেছি। কিন্তু আমার স্ত্রী আসতে পারিনি। জানিনা সে কবে আসবে, না আসবে না। এমন আর্তনাদ সীমান্ত এলাকা দিয়ে অবৈধভাবে অনুপ্রবেকারী মানুষের। এদিকে সীমান্ত পার হয়ে আসা অধিকাংশেরই নেই বৈধ নাগরিকত্ব। তাদেরকে পাসপোর্ট অধ্যাদেশ আইনে মামলার পর আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

ঝিনাইদহ-৫৮ বিজিবি পরিচালক লে. কর্নেল কামরুল আহসান জানান, সীমান্ত এলাকায় ব্যাপক সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বিজিবি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: