প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের কর্মচারীসহ শৈলকুপায় ৩জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজী মামলা


ঝিনাইদহ প্রতিনিধি :
ঝিনাইদহের শৈলকুপায় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের এক কর্মচারী, তার ভাই ও দুলা ভাইসহ তিন জনের নামে চাঁদাবাজী মামলা দায়ের হয়েছে। গত ২৩ এপ্রিল ২০১৯ মঙ্গলবার বিজ্ঞ শৈলকুপা আমলী আদালত, ঝিনাইদহে এ মামলা দায়ের হয়েছে। শৈলকুপা উপজেলার নিত্যানন্দপুর ইউনিয়নের রায়জাদাপুর গ্রামের শ্রীবাস মন্ডলের ছেলে শ্রীকান্ত মন্ডল বাদী হয়ে বিজ্ঞ আদালতে এ মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, শ্রীকান্ত মন্ডল ছোট থাকতে তার মা মৃত্যুবরণ করে। পরে তার পিতা শ্রীবাস মন্ডল খড়িবাড়িয়া লক্ষিপুর গ্রামে কুঞ্জলাল ডাক্তারের মেয়েকে প্রায় ৪০ বছর পূর্বে বিয়ে করে দ্বিতীয় স্ত্রী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে বাড়িতে তোলে। সৎ মায়ের গর্ভে নিমাই মন্ডলের জন্ম হয়। নিমাই মন্ডল বড় হয়ে বগুড়া ইউনিয়নের তেতুলীয়া গ্রামের রঞ্জিত মন্ডলের মেয়েকে বিয়ে করে। নিমাই মন্ডলের দুই শ্যালক উৎপল মন্ডল ও উত্তম মন্ডল। নিমাই মন্ডল সৎ ভাই শ্রীকান্তকে সম্পত্তি বঞ্চিত করতে দীর্ঘদিন ধরে নানা কৌশল খাটাতে থাকে। এ কাজে নিমাই মন্ডলের মা ও দুই শ্যালক সহযোগিতা করে আসছে বলে জানা গেছে। এদের সহযোগিতায় নিমাই মন্ডল ইতোপূর্বে বড় সৎ ভাই শ্রীকান্তকে ফাঁকি দিয়ে পিতার কাছ থেকে কৌশলে ৭০ শতাংশ জমি রেজিষ্ট্রি করে নেয়। বাকী সম্পত্তি ফাঁকি দিয়ে নেয়ার জন্যও পাঁয়তারা চালাচ্ছে। শ্রীকান্ত জানতে পেরে বাধা দিলে নিমাই তার দুই শ্যালককে দিয়ে শ্রীকান্তকে বিভিন্নভাবে হুমকি ধামকি দিতে থাকে। এর মধ্যে নিমাই এর শ্যালক উৎপল মন্ডল প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে চাকুরির সুবাদে প্রশাসনিক ও রাজনৈতিকভাবে শ্রীকান্তকে দীর্ঘদিন ধরে হুমকি-ধামকি ও হয়রানি করে আসছে। এক পর্যায়ে উৎপল মন্ডল ও তার ভাই উত্তম মন্ডল নিমাই এর উপস্থিতিতে ধারালো অস্ত্র নিয়ে গত ২১ এপ্রিল রবিবার শ্রীকান্ত মন্ডলের বাড়িতে প্রবেশ করে। এসময় শ্রীকান্ত মন্ডলের কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। না দিলে দেশেই রাখবে না অথবা প্রাণে মেরে লাশ গুম করার হুমকি দেয়। প্রাণ ভয়ে শ্রীকান্ত সেসময় ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দিয়ে প্রাণে রক্ষা পায়। চাঁদাবাজরা পরবর্তী ৭ দিনের মধ্যে বাকী সাড়ে ৪ লাখ টাকা পরিশোধ করতে হুমকি দিয়ে মারপিট করে চলে যায়। এ ঘটনার পর শ্রীকান্ত থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা না নেওয়ায় বাধ্য হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন। মোকদ্দমা নং-৩৮৫/৩৮৭/১১৪/৫০৬ (২) দ:বি: আইন।

মামলার বাদী শ্রীকান্ত মন্ডল জানান, তার সৎ ভাই নিমাই মন্ডল পৈত্রিক সম্পত্তি বাবার কাছ থেকে ফাঁকি দিয়ে নিজের করে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। এতে তার সৎ মা ও সৎ ভায়ের দুই শ্যালক সহযোগিতা করছে। বিশেষ করে সৎ ভাইয়ের শ্যালক উৎপল মন্ডল প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে চাকুরি করে পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন মারফতে লোকজন দিয়ে নানা ধরনের হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরসহ বিভিন্ন দপ্তরে চাকুরি দেয়ার কথা বলে অনেক মানুষের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। উৎপল এর আগেও বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদা আদায় করেছে। সম্প্রতি ইয়াবাসহ লাঙ্গলবাধ এলাকা থেকে পুলিশের কাছে আটক হয় বলেও তিনি জানান। উৎপলের যন্ত্রনায় ও প্রভাব বিস্তারের ফলে এলাকাটি বসবাসের অযোগ্য হয়ে গেছে। এ বিষয়ে জানতে মামলার বাদী শ্রীকান্ত মন্ডলের সৎ ভাই নিমাই মন্ডলের ফোনে বার বার কল দিলেও সে রিসিভ করেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: