পঞ্চগড়ে বিয়ের দাবিতে পরকীয়া প্রেমিকের বাড়িতে গৃহবধূর অবস্থান

আল মাসুদ, পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি: 
পঞ্চগড়ে বিয়ের দাবিতে পরকীয়া প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে মর্জিনা বেগম (২৩) নামের এক গৃহবধূ।জানা গেছে, বোদা উপজেলার কাজলদিঘী  কালিয়াগঞ্জ  ইউনিয়নের জোর গ্রামের আব্দুল মজিদের মেয়ে মর্জিনা (২৩) ৫ বছর আগে বিয়ে হয় একই ইউনিয়নের দিঘল গ্রামের আজিম উদ্দিনের (কেলটা) ছেলে মো.সেলিমের সাথে।সুখেই চলছিল তাদের সংসার ।
কিন্তু মর্জিনা  পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে একই গ্রামের পার্শ্ববর্তী বাড়ী ওলিয়ার রহমানের ছেলে মকলেছার রহমানের (২৫) সাথে। প্রেমিক মকলেছার মর্জিনাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ৪ মাস ধরে বিভিন্ন সময়ে ভিন্ন জায়গায় একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে।এরই মধ্যে গত  রোববার (১০ মে)রাতে তারাবীহ নামাযের সময়ে মকলেছার প্রেমিকা মর্জিনার শয়ন ঘরে ঢুকলে বাড়ীর লোকজন টের পেয়ে আটক করলে প্রেমিক মকলেছারের বাবা,মা,ভাই এসে জোর করে মকলেছার কে নিয়ে যায়  এবং বিষয়টি গ্রামে জানাজানি হলে উপায়ন্তর না দেখে প্রেমিকা মর্জিনা বেগম বিয়ের দাবিতে গত ১০ মে রাতেই প্রেমিক মকলেছারের বাড়িতে অবস্থান নেয়।
৫ দিন অতিবাহিত হলেও ইউ পি সদস্য নুরুল আমিন ও সমাজপতিরা বিষয়টি মীমাংসার উদ্যোগ নিয়েও কোন সুরাহা টানতে পারেনি। প্রেমিকা মর্জিনার শ্বশুর আজিম উদ্দিন (কেলটা) জানায় আমাকে টাকার বিনিময়ে বিষয়টা আপোষ করার প্রস্তাব দিয়েছিল কিন্তু আমরা উচিত বিচার চেয়েছি। আমরা গরীব তাই ন্যায় বিচার পাচ্ছি না।  পরকীয়া প্রেমিক মকলেছার রহমান ও তার পরিবারের লোকজন মর্জিনা বেগমকে ঘরে তুলবেনা সমাজপতিদের জানিয়ে দেয় ।
কাজলদীঘি কালিয়াগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলাল উদ্দিন আলাল জানান, বিষয়টা আমি জানিনা। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব। 
এই বিষয়ে বোদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু হায়দার মো. আশরাফুজ্জামান জানান, এটা পারিবারিক বিষয় ।এই মুহুর্তে  স্থানীয় ভাবে বসবে, না হলে আদালতের আশ্রয় নিতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: