নীলফামারীতে পৌরমেয়র ও দুই চিকিৎসকসহ ৫২ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে

নীলফামারী প্রতিনিধি॥ নীলফামারী পৌরসভার মেয়র ও দুই চিকিৎসক দম্পত্তিসহ জেলায়হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৫২ জন। বৃহস্পতিবার(১৯ মার্চ) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. রনজিৎ কুমার বর্মন। তিনি জানান, ভারত ভ্রমণের পর সম্প্রতি দেশে ফিরে নীলফামারী পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ এবং নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতালে শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. দীলিপ কুমার রায় ও তার স্ত্রী ডা. শেফালী রানী। বৃহস্পতিবার স্বেচ্ছায় তারা নিজ বাড়িতে ঘরে হোম কোয়ারেন্টাইনে গিয়েছেন। তারা সকলেই সুস্থ রয়েছেন।
জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের কোভিড-১৯ প্রতিরোধ কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা গেছে, গত ১ মার্চ হতে ১৯ মার্চ জেলায় বিদেশ ফেরা ৫২ জন ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।তাদের মধ্যে জেলা সদরে ১৩জন, সৈয়দপুরে ৫জন,ডিমলায় ১২জন,ডোমারে ১৪জন,জলঢাকায় ৫জন এবং কিশোরীগঞ্জে ৩জন রয়েছেন। ওই ৫২ জনের মধ্যে সিঙ্গাপুর থেকে ১৪ জন, ভারত থেকে ১৩ জন, মালোয়েশিয়া থেকে ৭ জন, দুবাই থেকে ৪জন, সৌদি আরব থেকে ২জন, ইতালী থেকে ২ জন, মালদ্বীপ থেকে ২জন, মরিশাস থেকে ২জন, কঙ্গো থেকে ২জন, অস্ট্রেলিয়া থেকে ১ জন, কাতার থেকে ১ জন, ব্রুনাই ১, বাহরাইন থেকে ১ জন বাংলাদেশে এসেছেন। বর্তমানে তারা সকলে সুস্থ আছেন।নীলফামারী পৌরমেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, আমি ভারতের যে এলাকায় গিয়েছিলাম সেখানে করোনা ভাইরাসের কোনো রোগী শনাক্ত হয়নি। আমি ভারত থেকে ফেরার পর বাড়িতে থাকলেও বৃহস্পতিবার(১৯মার্চ) আনুষ্ঠানিকভাবে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছি।জেলা সিভিল সার্জন ডা. রনজিৎ কুমার বর্মন বলেন, গত ১ ডিসেম্বর থেকে ১৯ মার্চ পর্যন্ত জেলায় বিদেশ ফেরতে ৮৯ জন। ইতোমধ্যে ৩৭ জনের হোম কোয়ারেন্টাইন সম্পূর্ণ হয়েছে এবং তারা সুস্থ আছেন। নোবেল করোনা মোকাবেলায় ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের ১৪টি কক্ষে ৫৮টি আইসোলেশন বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। অন্যদিকে বৃহস্পতিবার(১৯মার্চ)দুপুরে জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে জেলার ছয় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, চার পৌরসভার মেয়র ও ৬০ ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যানদের নিয়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় এলজিএসপির প্রকল্পের প্রত্যেক চেয়ারম্যানকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রচারণা চালানোর জন্য ২৫ হাজার টাকা করে বরাদ্দ দেয়া হয়। সভায় জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, জেলা সিভিল সার্জন ডা. রনজিৎ কুমার বর্মন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( নীলফামারী সার্কেল) রুহুল আমিন প্রমুখ।এ সময়ে জেলা প্রশাসক উক্ত সভায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতা প্রচারণায় প্রতিটি ইউনিয়নে ইউপি চেয়ারম্যানকে আহবায়ক করে ২১ সদস্য করে কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: