নীলফামারীতে চোর চিনে ফেলায় ব্র্যাককর্মী খুন

জেলা ক্রাইম রিপোর্টার নীলফামারী॥ পাঁচ লাখ টাকা চুরি করে এক ব্র্যাক কর্মীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করে পালিয়ে গেছে একটি চোর চক্র। মঙ্গলবার(২৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে নীলফামারী সদরের সৈয়দপুর সড়কের কাজিরহাট নামক স্থানে। খুন হওয়া ব্র্যাক কর্মীর নাম মহিদুল ইসলাম(৪৫)। তিনি কাজিরহাট ব্র্যাক শাখার কর্মী। তার গ্রামের বাড়ি নওগাঁ।
এলাকাবাসী জানায়, সদর উপজেলার সংগলশী ইউনিয়নের সৈয়দপুর মহাসড়কের ধারে কাজিরহাটের ধারে সোহাগ ট্রেডার্স। এই দোকানের মালিক ঘটনার দিন বেলা ১২টার দিকে ব্যাঙ্ক হতে পাঁচ লাখ টাকা উত্তোলন করে দোকানে নিয়ে আসে। দোকানে ওই টাকা রেখে দোকান বন্ধ করে তিনি বাড়ি যান দুপুরের ভাত খেতে। বিকালে দোকান খুলে দেখতে পান তার দোকান লন্ডভন্ড ও দোকানের সিসি ক্যামেরা, কম্পিউটারসহ টেবিলের ড্রয়ারে রাখা পাঁচ লাখ টাকাও নেই। এলাকাবাসী ও পুলিশের ধারনা সোহাগ ট্রেডাসের পেছনে রয়েছে কয়েকটি বসতবাড়ি। একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন কাজিরহাট ব্র্যাকের কর্মী মহিদুল ইসলাম। সোহাগ ট্রেডারের মালিকসহ এলাকাবাসী দোকানের পেছনে গিয়ে দেখে ওই ব্র্যাক কর্মীর ঘরে তালা ঝুলছে। টাকা চুরির বিষয়টি সোহাগ ট্রেডার্সের মালিক নীলফামারী থানায় এসে অভিযোগ করেন। এর দেড় ঘন্টা পেরিয়ে গেলে এলাকাবাসী দেখতে পায় যে ঘরে ব্র্যাক কর্মী ভাড়া থাকেন সেই ঘরের তালা লাগানো দরজার নিচ দিয়ে রক্ত চুয়ে চুয়ে বাহিরে বেরিয়ে আসছে। তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশকে জানালে সেখানে ছুটে যায় পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেনসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারা।
এ বিষয়ে কথা বললে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রুহুল আমীন সাংবাদিকদের জানান বিষয়টি রহস্যজনক। পুলিশ সুপারসহ আমরা ঘটনাস্থলে রয়েছি। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে সোহাগ ট্রেডার্সের টাকা চুরির বিষয়টি হয়তো ব্র্যাক কর্মী দেখে ফেলায় চোরেরা ওই ব্র্যাককর্মীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ঘরে তালা দিয়ে পালিয়ে গেছে। তিনি বলেন, রংপুর হতে পুলিশের একটি বিশেষ টিম এসে আলামত সংগ্রহ করেছেন। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে বিস্তারিত জানানো যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: