ঢাবিতে ভর্তি জালিয়াতির দায়ে ৬৩ শিক্ষার্থী বহিষ্কৃার

ক্রাইম পেট্রোল ডেস্ক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি ও ডিজিটাল জালিয়াতির দায়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৩ জন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে । বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী সিন্ডিকেট গত মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) এসব শিক্ষার্থীদের বহিষ্কার করে। তবে গত এক সপ্তাহে ওই শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশ করেনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। পরে মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের হল ও অনুষদগুলোতে এসব কপি পাঠানো হলে সেখান থেকে গণমাধ্যমকর্মীদের সহায়তায় প্রকাশিত হয় ৬৩ জনের নাম ও তালিকা।

এর আগে গত শুক্রবার দৈনিক ইত্তেফাকে ‘জালিয়াতদের তালিকা প্রকাশে ভিসি রাজি, বাধা প্রক্টর’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর পরপরই জালিয়াতি করা ওই শিক্ষার্থীদের নাম প্রকাশের দাবি ওঠে। সর্বশেষ গত সোমবার নাম প্রকাশের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর আবেদন জানায় ডাকসুর সদস্য তানভীর হাসান সৈকত। এর পরপরই সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেনও একই দাবি জানান। এরপরও তালিকা প্রকাশ করেননি প্রক্টর।

পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক স্বাক্ষরিত ওই তালিকায় বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের চার শিক্ষার্থী হলেন- মো. আব্দুল ওয়াহিদ, মো. ইছাহাক আলী, আনিকা বৃষ্টি, ফিওনা মহিউদ্দিন মৌমি, মো. মাসুদ রানা। সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের সাত শিক্ষার্থী হলেন- সালমান এফ রহমান হৃদয়, ইসরাত জাহান ছন্দা, মো. রাকিবুল হাসান, সৌভিক সরকার, মো. মেহেদী হাসান, মো. হাসিবুর রশিদ, মো. মারুফ হাসান খান। আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের সাফায়াতে নূর সাইয়ারা নোশিন। ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট এন্ড ভালনারেবিলিটি স্টাডিজ ইনস্টিটিউটের জি এম রাফসান কবির। পরিসংখ্যান বিভাগের মো. আবু জুনায়েদ সাকিব। তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগের মোস্তাফিজ-উর-রহমান। রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ৫ শিক্ষার্থী হলেন- শরমিলা আক্তার আশা, মো. লাভলুর রহমান লাভলু, জাকিয়া সুলতানা, জেরিন হোসাইন, আবির হাসান হৃদয়। অর্থনীতি বিভাগের ৩ শিক্ষার্থী হলেন সামিয়া সুলতানা, সিনথিয়া আহমেদ, জান্নাত সুলতানা। আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ৪ শিক্ষার্থী মো. আশরাফুল ইসলাম আরিফ, আমরিন আলম জুটি, নওশীন আফরিন মিথিলা ও আল আমিন পৃথক।

টেলিভিশন, ফিল্ম এন্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের মেহেজাবিন অনন্যা, মো. শাদমান শাহ। সমাজবিজ্ঞান বিভাগের মো. আফসানা নওরিন ঋতু, ইতিহাস বিভাগের ফাতেমা আক্তার তামান্না। বাংলা বিভাগের দুইজন হলেন- এম ফাইজার নাঈম, জিয়াউল ইসলাম। ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ৩ জন হলেন- তাজুল ইসলাম সম্রাট, নুরুল্লাহ, সাদিয়া সুলতানা। ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের তিনজন হলেন- মো. মাসুদ রানা, ফাতেমা-তুজ জোহরা, মো. শাবিরুল ইসলাম।

সূত্র : দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: