ডোমার জোড়াবাড়ীতে প্রতারক আজগার আলী’র খপ্পরে ইয়াকুব আলীর পরিবার সর্বস্বান্ত

ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি>>

নীলফামারীর ডোমার উপজেলার জোড়াবাড়ীতে চিহিৃত প্রতারক আজগার আলী’র খপ্পরে ইয়াকুব আলী’র পরিবার সর্বস্বান্ত হয়েছে। বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে সুকৌশলে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছেআজগার আলীর বিরুদ্ধে । এ বিষয়ে প্রতারক আজগার আলী’র বিরুদ্ধে ডোমার থানাসহ নীলফামারী চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একাধিক মামলা হয়েছে।

সরেজমিনে ও মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার জোড়াবাড়ী ইউনিয়নের হলহলিয়া ভাষানী পাড়া ৭নং ওয়ার্ড রেলঘুন্টি সংলগ্ন এলাকার মৃত- শাহাজ উদ্দিনের ছেলে আজগার আলী (৪০) বিভিন্ন এলাকার মানুষের সাথে পরিকল্পিতভাবে জাল বিছিয়ে প্রতারণা করে আসছে।

এমনি একজন ভুক্তভোগী একই ইউনিয়নের মাস্টার পাড়া ২নং ওয়ার্ডের, মৃত ইয়াকুব আলী’র ছেলে নুর ইসলাম জানান, চিট আজগার ২০১৭ সালে তার বাবা ইয়াকুব আলী’র কাছ থেকে ৮শত টাকা দরে ১ শত ২০ মন ধান খরিদ করে এবং ধান বিক্রি করে ১০দিনের মধ্যে টাকা দেওয়ার কথা জানান। এরই মধ্যে ৫দিনের মাথায় ধানের ব্যবসায় মোটা অঙ্কের লাভের কথা বলে ২ ট্র্যাক ধান কেনার নাম করে আবারো ইয়াকুব আলী’র কাছ থেকে ১লক্ষ টাকা হাওলাত হিসাবে নেয় আজগার। সকলের সামনে পাকা কথা দেয় ট্র্যাকের ধান বিক্রি করে ২দিনের মধ্যে ক্রয়কৃত ধানের ১ লক্ষ ও হাওলাতকৃত ১লক্ষ টাকা ফেরত দিবে। কিন্তু এমতাবস্থায় দীর্ঘ ৪বছর পেরিয়ে গেলেও অদ্যাবদি সেই টাকা ফেরত না দেওয়ায় ২লক্ষ টাকার টেনশনে ইয়াকুব আলী ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়ে। চিকিৎসার জন্য সামান্য টাকা চাইতে গেলে আজ, কাল, পরশু, মাসের পর মাস দিন তারিখ দিয়ে টাল বাহানার ছলে প্রতারণা করে আসছে চিট আজগার। টাকার শোকে ইয়াকুব আলী গত ১০/০২/২০১৮ ইং তারিখে মৃত্যুবরণ করে। ইয়াকুব আলী’র ছেলে আজগারের পিছনে ৪বছর ঘুরেও টাকা উদ্ধার করতে না পারায় গত ২৫/১০/২০২০ তারিখে স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তির সামনে আজগার লম্বা সময় নিয়ে ১০/০১/২১ তারিখে টাকা দেওয়ার মুচলেকা প্রদান করেন। আবারো সেই কুকুরের লেজ সোজা হওয়ার নয়। ১০ তারিখ আসার পরে আবারো আগের মতো দিন, তারিখ দিয়ে সময় ক্ষেপন করে আসছে চিট আজগার। গত ২৫/০১/২০২১ইং তারিখে সন্ধ্যায় মিরজাগঞ্জ স্টেশন বাজারে চিট আজগারের কাছে টাকা চাইতে গেলে নুর ইসলাম ও তার চাচা ইদ্রিস আলী, ভাই আনিছুর রহমান কে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এ বিষয়ে বাক-বিতণ্ডের সৃষ্টি হলে আজগার ও তার ছেলে সমিত ও সিফাত লাঠিশোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে নুর ইসলাম, ইদ্রিস,আনিছুর রহমানকে মারার জন্য ধাওয়া করে এবং সকলের সামনে চিৎকার করে আজগার বলে, এবার টাকা চাইতে আসলে সুযোগ মতো তার ভাড়াটিয়া গুন্ডা বাহিনী দ্বারা তাদের খুন জখম করিয়া লাশ গুম করিবে বলে বাজারে সকলের সামনে হুমকি প্রদর্শন করে। নুর ইসলামের বড় ভাই আনিছুর রহমান বাদী হয়ে গত ২৬ জানুয়ারি চিটার আজগার ও তার ২ ছেলে বিরুদ্ধে ডোমার থানায় মামলা দায়ের করে। এ ছাড়াও মুচলেকার সূত্রধরে আজগার ও তার ২ ছেলের বিরুদ্ধে নীলফামারী আদালতে ৪২০/৪০৬/ ৫০৬ (০২) ধারায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে ভুক্তভোগীরা জানান।

এ বিষয়ে চিট আজগার আলী বলেন, ব্যবসায় লস হয়েছে, এক টাকাও দিবো না, যা করার করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: