জগন্নাথপুরে বাড়ি নিয়ে মা-মেয়ের হামলা-মামলা

আলী হোসেন খান , জগন্নাথপুর প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে বাড়ির জায়গার মালিকানা নিয়ে মা-মেয়ের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে একের পর এক হামলা-মামলার ঘটনা ঘটছে। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় আবারো বড় ধরণের সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, জগন্নাথপুর পৌর শহরের বাড়ি জগন্নাথপুর গ্রামের মৃত গোলাম বারী নামের এক ব্যক্তির স্ত্রীসহ ৪ কন্যা সন্তান রয়েছেন। বাড়িতে থাকা ৮ শতক জায়গার মধ্যে ২ শতক জায়গায় গত বছর মৃত গোলাম বারীর ভাতিজা যুক্তরাজ্য প্রবাসী মিঠু মিয়া তার চাচী তকবুল বিবিকে দালান বাড়ি বানিয়ে দেন। এ বাড়িতে তার চাচীর সাথে থাকতেন তার চাচাতো বোন হোসনা বেগম। এক পর্যায়ে মাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়া হয়। এ নিয়ে মা-মেয়ে একজন আরেক জনের পক্ষ হয়ে যান। এ সময় বাড়ির মালিকানা দাবি করেন অন্য বোন বেবী বেগম, হাসনা বেগম ও ববিতা বেগম। এ নিয়ে এলাকায় অনেকবার শালিস বৈঠক হয়েছে। শালিসে ৮ লাখ টাকা নিয়ে হোসনা বেগমকে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। তিনি তার পরিবারকে নিয়ে না যাওয়ায় হামলা-মামলার ঘটনা ঘটে। এরই জের ধরে শুক্রবার প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসী হামলায় হোসনা বেগমের ছেলে সেলিম আহমদ আহত হন।

এ ব্যাপারে শনিবার আহত যুবক সেলিম আহমদের পিতা ও হোসনা বেগমের স্বামী আফরোজ আলী বলেন, আমারা বাড়িতে ৭ শতক জায়গা পাই। তারা ২শতক জায়গার দাম ধরে ৮ লাখ দিয়ে সরিয়ে দিতে চায়। যে কারণে আমরা না যাওয়ায় আমার ছেলের ওপর হামলা করেছে।

জগন্নাথপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র শফিকুল হক বলেন, তাদের মা-মেয়ের বিষয়টি আপোষে নিস্পত্তি হয়েছে। ৮ লাখ টাকা নিয়ে হোসনা বেগম তার স্বামী আফরোজ আলী ও ছেলে সেলিম আহমদসহ সবাইকে নিয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার কথা ছিল। এখনো সে চলে না যাওয়ায় এ ঘটনা ঘটতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: