জগন্নাথপুরে ফসলি জমিতে চলছে লাইসেন্সবিহীন ইটভাটা

মোঃ আলী হোসেন খাঁন, জগন্নাথপুর প্রতিনিধির:

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে ফসলি জমিতে লাইসেন্স বিহীন ইটভাটা চলছে। এ নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। পরিবেশ দূষণের কবলে পড়েছেন ইট ভাটার পাশে থাকা বাড়ি ঘরের মানুষ। তবে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র এক নামে থাকলেও চলছে অন্য নামে।
স্থানীয়রা জানান, কয়েক বছর আগে জগন্নাথপুর উপজেলার পাটলি ইউনিয়নের কচুরকান্দি এলাকায় সড়কের পাশে আমন ফসলি জমিতে একটি ইটভাটা তৈরি করা হয়। এর মধ্যে কয়েক বার এ ইট ভাটাটি বিভিন্ন কারণে বন্ধ হয়েছে। তবে গত কয়েক মাস ধরে এস.এম.এস ব্রিক ফিল্ড নামে এ ইটভাটাটি আবারো চালু হয়। এরপর থেকে জ্বলছে আগুন, পুড়ছে মাটি। আগুনের ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে এলাকা।
২২ জানুয়ারি বুধবার সরজমিনে দেখা যায়, ইটভাটায় শতাধিক শ্রমিক কাজ করছেন। ইটভাটার সাথেই রয়েছে অসংখ্য বসত বাড়ি। এ সময় কথা হয় ইটভাটার দায়িত্বে থাকা ম্যানেজার আরিফ ও সংশ্লিষ্ট অন্য এক জনের সাথে। তারা ইট ভাটায় আশানুরূপ ব্যবসা হচ্ছে না বলে জানান। এর মধ্যে শ্রমিক সর্দার অগ্রিম টাকা নিয়ে পালিয়েছে। কোন রকমে চলছে ব্যবসা। এক প্রশ্নের জবাবে ইট ভাটার লাইসেন্স সম্পর্কে তারা কিছুই জানেন না বলে জানান। তবে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র দেখান। এতে দেখা যায় হাজী রইছ মুন্সী ব্রিক ফিল্ড এর নাম রয়েছে। যদিও এস.এম.এস ব্রিক ফিল্ড নামে এ ইটভাটা চলছে।
তবে যোগাযোগ করে জানতে চাইলে এ ইটভাটার মালিক ছাতক উপজেলার দোলার বাজার ইউপি সদস্য ছালিক মিয়া চৌধুরী বলেন, লাইসেন্স পাওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছি। এখনো লাইসেন্স পাইনি।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র দিয়ে চলছে। তবে নামের পরিবর্তনের বিষয়ে তিনি বলেন, এ ব্রিক ফিল্ডের জায়গার মালিক প্রয়াত হাজী রইছ মুন্সী। বর্তমানে তার ছেলের সাথে পার্টনারশিপ ব্যবসা করছি।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম মাসুম বলেন, এখানে লাইসেন্সবিহীন ব্রিক ফিল্ডের খবর পেয়েছি। অচিরেই অভিযান চালিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: