চলনবিলে নৌ ভ্রমণের আড়ালে চলছে অসামাজিক কার্যকলাপ ও নৃত্যের নামে অশ্লীলতা!

তোফাজ্জল হোসেন বাবু,পাবনা ঃ

চলনবিলের নৌ ভ্রমণের আড়ালে চলছে অসামাজিক কার্যকলাপ,নৃত্য ও অশ্লীলতা।  পাবনা, নাটোর ও সিরাজগঞ্জ এ তিন জেলার চলনবিলের বিভিন্ন পয়েন্টে বর্ষা মৌসুমে নৌ ভ্রমণের আড়ালে চলছে অসামাজিক কার্যকলাপ। এ খবর সকলের কানে কানে পৌঁছে গেছে এলাকার সকল সচেতন মহলের কাছে। এ বিষয় নিয়ে বিলপাড়ের সচেতন ব্যক্তিরা সাংবাদিকদের বলেন, প্রসাশনের কালো চশমার আড়ালে চলছে এই সব অনৈতিক কাজগুলো। দিনে-রাতে প্রকাশ্য চলা এ কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে আন্তরিকতা দেখা যায়নি পুলিশসহ উপজেলা প্রশাসনের!ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েছে বিলপাড়ের বাসিন্দারা।

সরেজমিনে গিয়ে  দেখা গেছে, গত সোমবার/ মঙ্গলবার হাটিকুমরুল – বনপাড়া বিশ্বরোড়ের ৮ ও ৯ নং ব্রিজের পাশে ঠেকানো দুটি পিকনিকের নৌকায় নাচানো হচ্ছে  অল্প বয়সী যুবতী নর্তকী। এদিকে চাটমোহর উপজেলার হান্ডিয়াল, বওশা,অষ্টমনিষা, ও নিমাইচড়া বিলে দেখা গেছে, বেশিরভাগ ভ্রমণের নৌকার সামনে ছোট ছোট ( পেন্টি ও ব্রেশিয়ার) পোশাকে নাচছেন নর্তকীরা। সিনেমা স্টাইলে তাদের সঙ্গ দিচ্ছেন যুবক ও তরুণেরা। ছাউনির (ছই) ভেতরেও চলছে নাচ। সেখানকার পরিবেশটা আরও লজ্জাজনক। তবে অন্য একটি নৌকার কাছাকাছি আসতেই নর্তকীরা সামনের অংশে থেকে দ্রুত চলে যাচ্ছেন ছাউনির ভেতরে। খোঁজ নিয়ে জানা গেলো, কথিত এ সব নর্তকীরা মূলত যৌনকর্মী।বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে এক শ্রেণির দালাল নিজেদের লাভের জন্য এদের মোটা অংকের টাকা দিয়ে আসছেন। অভিযোগ আছে, দিনে নাচের মাধ্যমে ‘আনন্দ’ দিলেও রাতে ঘটছে অসামাজিক কার্যকলাপ।

একাধিক সূত্র জানিয়েছে, নর্তকী থাকা নৌকা গুলো গভীর বিলে চলে যায় রাতে। রাতভর বিলেই থাকে। অসাধু নৌকা ব্যাবসায়ীরা এ ধরণের নৌকাগুলো বেশিরভাগ অংশ কৌশলে পর্দা দিয়ে ঢেকে রাখছেন এবং সুকৌশলে চালিয়ে যাচ্ছে নৌভাড়া ব্যাবসা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে, হান্ডিয়াল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কেএম জাকির হোসেন বলেন, আমিও শুনেছি। গ্রাম পুলিশ দিয়ে টহল দেওয়া হচ্ছে। ওরা সংখ্যায় বেশি, তাই কিছু করা যায় না। এক বছর আগে চারজন নর্তকীকে আটক করে পুলিশে দিয়েছিলাম।

হান্ডিয়াল তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ বলেন, কয়েক দিন আগে দুইজন মেয়েকে আটক করে চাটমোহর থানায় হস্তান্তর করেছি। আমাদের অভিযান চলমান আছে, এ বিষয়ে সচেতন মহলের এগিয়ে আসতে হবে ও ভ্রাম্যমাণ আদালত চালানো হলে বন্ধ হতে পারে এ অসামাজিক কার্যকলাপ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার অসীম কুমার বলেন, অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: