চকরিয়ায় জমে উঠেছে পৌরনির্বাচন

 

জিয়াউল হক জিয়া,চকরিয়া প্রতিনিধিঃ দুই দফা নির্বাচন স্হগিত হওয়ার পরেও নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ঘোষিত ২০সেপ্টেম্বর ভোটগ্রহণের তারিখ ঘোষণায় আবারও কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভা নির্বাচনের প্রচারণা জমে উঠেছে।

উল্লেখ্য,পৌর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা পর চলতি বছরের ১১ এপ্রিল এবং পরবর্তীতে ২১ জুন চকরিয়া পৌরসভার নির্বাচনের ভোটগ্রহণের ধার্য্যদিন।করোনা সংক্রমণের কারণে তা স্হগিত করা হয়।পরে সংক্রমণ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় নির্বাচন কমিশন পুনরায় ২ সেপ্টেম্বর কমিশনের বৈঠক শেষে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর দিনক্ষণ ধার্য্য করে নির্বাচন কমিশন। এরমধ্যে চকরিয়ায় মেয়র ও কাউন্সিলরসহ মোট ৬৮জন প্রার্থী নির্বাচনী প্রচারণায় তুমুল ব্যস্ত হয়ে পড়েছে।এতে  ব্যানার,পোস্টার ও ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পৌর এলাকা।চলছে গণসংযোগসহ মিটিং,ছোট-খাট মিছিল।পৌরবাসীরা নির্বাচনী আমেজে ভাসছে।প্রার্থীরা সকল পেশাজীবী মানুষের সাথে যোগাযোগসহ দোয়া,ভালবাসা ও সমর্থন প্রত্যাশী হয়ে বুকভরা আশা নিয়ে ভোটারদের দ্বারে-দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। পৌর-নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রির্টানিং কর্মকর্তা ও চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ সামসুল তাবরীজ ইতোমধ্যে নির্বাচনী কার্যক্রম শুরু করতে প্রার্থীদের জন্য প্রজ্ঞাপন জারি করেছেন।

২ সেপ্টেম্বর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, নির্বাচনী আচরণবিধি অনুসরণপূর্বক স্বাস্থ্যবিধি মেনে এখন থেকে প্রার্থীরা নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা চালাতে পারবেন। মূলত রির্টানিং কর্মকর্তার সেই নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে এখন প্রার্থীরা মাঠে নেমেছেন। চালাচ্ছেন উঠান বৈঠক, গনসংযোগসহ নানামুখী প্রচারণা।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চকরিয়া পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে চারজন, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে তিন ওয়ার্ডে ১৪ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৯ ওয়ার্ডে ৫৪ জনসহ তিন পদে সর্বমোট ৭২ জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। তৎমধ্যে বাতিল হওয়া, আপিলে ফিরে পাওয়া সহ বর্তমানে মেয়র পদে ৪ জন, ৩টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর পদে ১৪ জন এবং ৯টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৫০ জনসহ সর্বমোট ৬৮ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে অছেন।ফলে প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। মেয়র পদে চারপ্রার্থীরা হলেন,আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থী বর্তমান মেয়র ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী (নৌকা), নাগরিক কমিটি মনোনীত স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান কাউন্সিলর জিয়াবুল হক (নারিকেল গাছ), জাতীয় পাটি (এরশাদ) মনোনীত প্রার্থী জাতীয় পাটির কেন্দ্রীয় নেতা মনোয়ার আলম (লাঙ্গল) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক ছাত্রনেতা অ্যাড. ফয়সাল সিদ্দিকী (কম্পিউটার)। ১১ এপ্রিল চকরিয়া পৌরসভার নির্বাচনে বিএনপি থেকে মেয়র পদে অংশ নিতে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে হায়দার।তবে দলের হাইকমান্ডের নির্দেশে ফরম আর জমা দেননি তিনি। সর্বশেষ ভোটযুদ্ধে আওয়ামীলীগে নৌকা আর স্বতন্ত্র প্রার্থীর নারিকেল গাছ নিয়ে চলছে প্রতিযোগিতা।

তথ্য সূত্রে জানা যায়,পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ৪৮ হাজার ৭২৪ জন।এতে পুরুষ ভোটার ২৫ হাজার ৮৯৯ জন ও নারী ভোটার ২২ হাজার ৮২৫ জন।

চকরিয়া পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, অনুষ্ঠিতব্য চকরিয়া পৌরসভা নির্বাচন ‘সুষ্ঠু, অবাধ, গ্রহণযোগ্য পরিবেশে সম্পন্ন করতে প্রশাসনের তরফ থেকে প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি প্রচার-প্রচারণার সময় প্রার্থীরা নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করছে কি-না তা-ও কঠোরভাবে নজরদারি করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: