চকরিয়ায় আমন ধানের জমিতে পোকামাকড়ের উপস্থিতি নির্ণয়ে ‘আলোকফাঁদ’ স্থাপন

অনলাইন ডেস্ক :

চকরিয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) নাজমুল হোসেন এর সার্বিক নির্দেশনায় চকরিয়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে আমন ধানের জমিতে পোকামাকড়ের উপস্থিতি নির্ণয়ের জন্য “আলোক ফাঁদ” স্থাপনের অংশ হিসেবে ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ঢেমুশিয়া ব্লকের মগঘোনা বিলে গতকাল রবিবার “আলোক ফাঁদ” স্থাপন করা হয়।

আলোক ফাঁদ স্থাপন অনুষ্ঠানে ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের দায়িত্বরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ডিপ্লোমা কৃষিবিদ মোহাম্মদ তাসনিম আলম মুন্না উপস্থিত কৃষকদের মাঝে “আলোক ফাঁদ” স্থাপন করে পোকামাকড়ের উপস্থিতি নির্ণয়ের পদ্ধতি, ও পোকামাকড়ের উপস্থিতির ভিত্তিতে দমন পদ্ধতি নির্বাচনে গুরুত্বারোপ করেন।

তিনি বলেন, “আলেক ফাঁদ” এর মাধ্যমে পোকার উপস্থিতি নিশ্চিত হলে সেই পোকা দমনের জন্য সমন্বিত বালাই দমন ব্যবস্থাপনা গ্রহণ করলে কৃষকের ফসল উৎপাদন খরচ কমবে ও নিরাপদ খাদ্য উৎপাদন সম্ভব হবে।” উপস্থিত কৃষকবৃন্দ উক্ত প্রযুক্তি গ্রহণে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

আলোক ফাঁদ স্থাপন অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নে কর্মরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা অসিউর রহমান এবং পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়নে কর্মরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা জনি নন্দী বক্তব্য রাখেন।

উপস্থিত অতিথিগণ কৃষি সম্প্রসারণে সরকারের বিভিন্ন অবদানের কথা উল্লেখ করেন এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চকরিয়ার সার্বিক কর্মকান্ড বর্ণনা করেন। এছাড়াও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও স্থানীয় কৃষকগণ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকান্ডকে স্বাগত জানান এবং আলোক ফাঁদ স্থাপন করে উপকৃত হয়েছেন বলে মতামত ব্যক্ত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: