গাইবান্ধায় নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে ১৫ টি পরিবারের বসতভিটা নদীগর্ভে বিলীন

শেখ মোঃ সাইফুল ইসলাম গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও গত কয়েক দিনের বৃষ্টিতে ঘাঘট,বক্ষ্রপুত্র, তিস্তা নদীর ন্যায় করতোয়া নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নদীতে দেখা দিয়েছে তীব্র ভাঙন। গত কয়েক দিনের বৃষ্টি ও উজানের নেমে আসা ঢলে উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়নের পারধুন্দিয়া গ্রামের পাশ দিয়ে প্রবাহিত করতোয়া নদীর করাল গ্রাসে গত দুইদিনে ১৫ টি পরিবারের বসতভিটা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে । পার ধুন্দিয়া গ্রামের ফুল মিয়া,লাল মিয়া, শাহারুল ইসলাম,সাহেব মিয়া,ওমর আলী,মনজু মিয়া,চান মিয়া,মশিউর রহমান,মোস্তাফিজুর রহমান, রফিকুল ইসলাম,আব্দুল কাদেরসহ ১৫টি পরিবারের বসতভিটা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর অনেকে বাঁধে, কেউ বা আবার অনত্র আশ্রয় নিয়েছেন।

ওই এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত বাসিন্দা মিজানুর রহমান জানান, আমাদের বাড়ী-ঘর নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেলেও কেউ খোঁজ রাখেনি। করোনা মাহামারী, বিগত দিনের লকডাউন ও এলাকায় কাজ কর্ম না থাকায় গত ৩ মাস ধরে অতি কষ্টে আমরা দিন-যাপন করছিলাম। তার উপর আবার নদী ভাঙনে আমাদের আনেকের শেষ সম্বল বসতভিটাটুকুও নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

এ বিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রামকৃষ্ণ বর্মন জানান, হরিরামপুর ইউনিয়নের পার ধুন্দিয়া গ্রামে নদী ভাঙনে কিছু বাড়ী- ঘর নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার খবর পেয়েছি। সরেজমিনে খোঁজ খবর নিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর তালিকা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: