কোটচাঁদপুরের ভোমরাডাঙ্গা মৌজায় জোরপূর্বক অসহায় কৃষকের জমি দখলের চেষ্টা, ১৪৪ ধারা জারি

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার ভোমরাডাঙ্গা মৌজায় ১২ বছর ধরে ভোগ দখলে থাকা লক্ষীপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তারের জমির ধান জোরপুর্বক কেটে নেওয়ার পাঁয়তারা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কোটচাঁদপুরের দোড়া ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের মাহাজ্জেল আলীর ছেলে আশরাফুল ও ইউসুফ আলীর ছেলে হারুনসহ অজ্ঞাত পরিচয় সন্ত্রাসীদের নিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় জমির পাকা ধান কেটে নেওয়ার চক্রান্ত করলে আদালত থেকে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

১৪৪ ধারা মামলার আরজি সূত্রে জানা গেছে, লক্ষীপুর গ্রামের সাবেক চেয়ারম্যান খলিলুর রহমানের ছেলে আব্দুস সাত্তার ও মফিজুল ইসলাম তার পিতার কাছ থেকে ২০০৪ সালে ৫ নং ভোমরাডাঙ্গা মৌজার ৬০২ সাবেক দাগের ১ একর ৩৮ শতক জমি কিনে ভোগ দখল করতে থাকেন। খলিলুর রহমান মৃত্যুবরণ করলে এই জমি নিয়ে আদালতে মামলা- মোকদ্দমা হয়। পরবর্তীতে এই জমি আব্দুস সাত্তারের অনকূলে ছলে সূত্রে ডিক্রি হয়। এ বছর আব্দুস সাত্তারের বর্গাচাষী বাবলু ও মজিবর ওই জমিতে ধান রোপণ করেন। ধান পেকে গেলে গত ২৫ নভেম্বর তারা কাটতে যান। সে সময় দ্বিতীয় পক্ষ আশরাফুল ও হারুন সন্ত্রাসী কায়দায় জমির পাকা ধান কেটে নিতে যায়। তারা আব্দুস সাত্তারকে খুন জখমের হুমকী দিয়ে গোটা জমি দখল করে নেওয়ার হুমকী দিলে আব্দুস সাত্তার আদালতের শরণাপন্ন হন। ২৬ নভেম্বর ঝিনাইদহের বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুস সাত্তারের নালিশী জমিতে ১৪৪ ধারা জারি করে শান্তি- শৃঙ্খলা বজায় রাখতে কোটচাঁদপুর থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

আব্দুস সাত্তার অভিযোগ করেন, তার সৎ ভাইয়ের করা দলিল সূত্রে আশরাফুল আমার জমি দখল করতে চায়। কিন্তু সেই দলিল আদালত কর্তৃক বাতিল হয়ে গেছে। পরে আশরাফুল ও হারুন অজ্ঞাত পরিচয় সন্ত্রাসীদের নিয়ে জমির পাকা ধান কেটে নিতে যায়। তারা আব্দুস সাত্তারকে খুন জখম ও গোটা জমি দখল করে নেওয়ার হুমকী দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: