করোনা ভাইরাসের লক্ষণ নিয়ে চীনফেরত শিক্ষার্থী রংপুর মেডিকেলে ভর্তি

মো. সাইফুল্লাহ খাঁন, জেলাপ্রতিনিধি, রংপুর: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে চীনফেরত এক শিক্ষার্থীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ ৮ফেব্রুয়ারি শনিবার বেলা ১টায় হাসপাতালের ৫ শয্যার আইসোলেশন ওয়ার্ডে তাসদীদ হোসেন (২৫) নামের ওই শিক্ষার্থীকে ভর্তি করা হয়। সে চীনের আনুই ইউনিভার্সিটি অ্যান্ড টেকনোলজির শিক্ষার্থী। তাসদীদ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন কি না তা নিশ্চিত করতে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) বিশেষজ্ঞদের একটি দল রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যাচ্ছে।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, নীলফামারী জেলার ডোমার মীরজাগঞ্জ এলাকার আলতাফ হোসেনের ছেলে তাসদীদ হোসেন আড়াই বছর ধরে চীনে অধ্যয়নরত। চীনে করোনাভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করলে গত ২৯ জানুয়ারি তাসদীদ দেশে ফিরে শরীরে জ্বর অনুভব করলে ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও সিভিল সার্জানের পর্যবেক্ষণে তাকে রাখা হয়। শনিবার সকালে তাসদীদের শ্বাসকষ্ট বাড়লে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের জন্য ৫ শয্যাবিশিষ্ট আলাদা ওয়ার্ডে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করান।

তাসদীদের বাবা আলতাফ হোসেন বলেন, চীন থেকে ফিরে আসার পর চিকিৎসকরা আমার ছেলেকে ১৪ দিন পর্যবেক্ষণে রাখার পরামর্শ দিয়েছিলেন। ঘুমটা একটু বেশি হচ্ছে। পাঁচদিন পর ছেলের শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। এজন্য হাসপাতালে নিয়ে এসেছি। যদি করোনাতে আক্রান্ত হয় তবে আমার ছেলে এখানে সুচিকিৎসা পাবে বলে মনে করছি।

এ ব্যাপারে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক আব্দুল মোকাদ্দেম জানান, যেহেতু সে চীন থেকে এসেছে তাই আমরা করোনা ওয়ার্ডে তাকে চিকিৎসা দিচ্ছি। আমাদের চিকিৎসকরা তাকে দেখাশোনা করছে। এ ব্যাপারে আইইডিসিআরের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে। তারা নমুনা পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে আসলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিতে পারবো। বর্তমানে জ্বর নেই তবে শ্বাসকষ্টের কথা বলছে রোগী। এটা করোনার উপসর্গ কি না তা এখনও বলা যাচ্ছে না। তার চিকিৎসার জন্য আমাদের চিকিৎসক, নার্স, ওয়ার্ড বয়দের সমন্বয়ে আলাদা টিম কাজ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: