আন্তর্জাতিক হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় হাফেজ তাকরীমের গৌরবময় অর্জন বাংলাদেশের জন্য সুনাম বয়ে এনেছে -ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

 

 

ক্রাইম পেট্রোল ডেস্কঃ

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো; ফরিদুল হক খান বলেছেন, হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরীম আন্তর্জাতিক হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়ে বাংলাদেশের জন্য সুনাম বয়ে এনেছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত বিশ্বের অত্যন্ত মর্যাদাপূর্ণ পবিত্র হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে বাংলার এই ক্ষুদে হাফেজ মাত্র ১৩ বছর বয়সে পৃথিবীর ১১১ টি দেশের প্রতিযোগীদের মধ্যে (১৫ পারা হিফজ ক্যাটাগরিতে) তৃতীয় স্থান অর্জন করে বাংলাদেশের জন্য যে সম্মান বয়ে এনেছেন তা এদেশের শিশু-কিশোরদের দারুনভাবে অনুপ্রাণিত করবে।

প্রতিমন্ত্রী আজ ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ (মঙ্গলবার) সকাল ১০.৩০ মিনিট বাইতুল মুকাররম মসজিদ এর পূর্ব সাহানে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনায় সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত ৪২তম বাদশাহ আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় (১৫পারা হিফজ ক্যাটাগরিতে) তৃতীয় স্থান অর্জন করায় বাংলাদেশি প্রতিযোগী হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরিমের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ হতে হাফেজ সালেহ আহুমদ তাকরীমের হাতে দুই লক্ষ টাকার চেক, ক্রেস্ট ও বই তুলে দেন।

প্রতিমন্ত্রী এসময় বলেন, আজকের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান নিছক কোন আনুষ্ঠানিকতা নয়। এ সংবর্ধনার মাধ্যমে দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানের আবেগ আর বিশ্বাসকে সম্মান জানানোর চেষ্টা করা হয়েছে। এই সংবর্ধনা হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরীমের মতো লক্ষ লক্ষ শিশুকে পবিত্র কুরআন শিক্ষার প্রতি আরো বেশি আগ্রহী করে তুলবে ।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইসলামের প্রচার ও প্রসারে তিনি ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা, জাতীয় পর্যায়ে ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (সা) পালন, বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড পুনর্গঠন, বিশ্ব ইজতেমার জন্য টঙ্গীতে জায়গা বরাদ্দ, কারাইলের মারকাজ মসজিদ সম্প্রসারণের জন্য জমি বরাদ্দ, হজ পালনের জন্য সরকারি অনুদানের ব্যবস্থাসহ অসামান্য অবদান রেখে গেছেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারও ইসলামের প্রচার ও প্রসারে প্রায় সাড়ে ৯ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে ৫৬৪ টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ, পবিত্র কুরআনের ডিজিটাইজেশান, ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা, হজ ব্যবস্থাপনায় ডিজিটাল সুবিধা চালু করণ, সৌদি আরবের ইমিগ্রেশন বাংলাদেশেই সম্পন্ন করা, কওমী শিক্ষার্থীদের দাওরায়ে হাদীস সনদকে মাস্টার্স সমমান প্রদান, মসজিদ ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে আলেম-ওলামাদের কর্মসংস্থান সহ ইসলামের খেদমতে বহুবিধ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ তারিখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনায় ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ঢাকা ২০২০ উপলক্ষে ‘ওআইসি আন্তর্জাতিক যুব ক্বিরাআত প্রতিযোগিতা-২০২০ আয়োজন করা হয়েছে।

ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের মহাপরিচালক ড. মো. মুশফিকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মু. আব্দুল আউয়াল হাওলাদার, হাফেজ তাকরীমের পিতা হাফেজ আব্দুর রহমান, হাফেজ তাকরীমের মাদ্রাসা
মারকাজে ফায়জিল কুরআনের মুহতামীম মুফতী মুরতাজা হাসান ফয়েজী প্রমুখ।

দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন জাতীয় মসজিদ বায়তুল মুকাররম এর খতিব ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন এর বোর্ড অব গভর্ণরস এর গভর্ণর আল্লামা মুফতি রুহুল আমিন ।

.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
%d bloggers like this: